পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে এখন থেকে গাঁটযুক্ত কাঁচা বাঁশ কেটে রাখার নিদান দিলীপ ঘোষের

0
20

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ পঞ্চায়েত নির্বচনের জন্য গাঁট ওয়ালা কাঁচা বাঁশ কেটে রাখার পরামর্শ দিলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। বিষ্ণুপুরে বিজেপির চোর ধরো জেল ভরো কর্মসূচীতে যোগ দিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে গুন্ডা ও পুলিশকে দিয়ে ভোট লুঠ করা হয়েছে। বহু জায়গায় মনোনয়ন করতে দেওয়া হয়নি। আমরা সোজা মনে ভোট করতে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমাদের মনোনয়ন করতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সাত দিন ধরে এসডিও ও বিডিও অফিস ঘেরাও করে রাখা হয়েছিল। এবার কিন্তু আর আমরা খালি হাতে যাব না। কাঁচা বাঁশ নিয়ে যাব। এখন থেকে বাঁশ কেটে রাখুন। বাড়িতে রাখুন যেন সেই বাঁশ শুকিয়ে না যায়। বাঁশ চাঁছবেন না যেন গাঁট বেরিয়ে থাকে। মারলে যাতে গায়ে দাগ হয়। যারা গরীব লোকের টাকা লুঠ করে দুতলা তিনতলা বাড়ি বানিয়েছে, কালো স্কর্পিও গাড়ি কিনেছে, ভেবেছে সুখে এসি গাড়ি চড়ে বেড়াবে। সেই  স্কর্পিও গাড়ি চড়ার সুযোগ পাবে না। বাড়ির সামনে পুলিশের গাড়ি এসে দাঁড়াবে। সেই গাড়ির এসিও নেই, জানালাও নেই। সেই গাড়িতে ঘামতে ঘামতে যেতে হবে। অনেককে দেখবেন পুজোর আগেই জেলে ঠাই হবে। নতুন জামা কাপড় পরা হবে না, বৌ এর যে গহনা করে দেওয়া হয়েছে তা আর পরা হবে না। আজ বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে চোর ধরো জেল ভরো মিছিল শেষে একটি সভায় এই ভাষাতেই তৃণমূল নেতাদের হুশিয়ারি দিলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। জাগো বাংলায় নবান্ন অভিযান ও বৈদিক ভিলেজের খরচ নিয়ে তোলা প্রশ্নের প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, টাকাটা কী কুনাল ঘোষ দিয়েছেন নাকি তৃণমূল দিয়েছে। কত খরচ হয়েছে তা তাঁরা জানলেন কী করে? কার বাপের কী যায় আসে। আমরা কাটমানি বা কয়লা গরুর টাকা নিয়ে তো আর করিনি। বিজেপি মানুষের দেওয়া টাকায় চলে চুরি বা কাটমানির টাকায় চলে না।

LEAVE A REPLY