বাঁকুড়ায় হাতির তান্ডবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি,আতঙ্কে গ্রামবাসী,চারটি হাতি নিয়ে চিন্তায় বন দফতর

0
67

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ চার দাঁতাল চিন্তা বাড়িয়েছে বন দফতরের। বাঁকুড়ার বেলিয়াতোড় রেঞ্জে তিনটি হাতি বেশ কয়েকদিন ধরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এর সাথে সোমবার রাতে সোনামুখীর দিক থেকে আর একটি হাতি যোগ দেয় ওই দলে। ওই দিন যোগ দেওয়া হাতিটি ঢুকে পড়ে বেলিয়াতোড় রেঞ্জের ওলতোড়া গ্রামে। প্রথমে গ্রামে ঢুকতে গেলে গ্রামবাসীদের তাড়া খেয়ে জঙ্গলে গা ঢাকা দেয় হাতিটি। পরে গভীর রাতে ফের ওই গ্রামে ঢুকে পড়ে সোনামুখী থেকে বেলিয়াতোড়ে আসা হাতিটি। গ্রামে ঢুকে প্রথমে একটি ভুসি মালের দোকান ভেঙ্গে সাঙ্গ করে দোকানের মধ্যে থাকা আলু, চাল ও আটা। তারপরে একটা আটা ভাঙ্গা কলের গেট ভেঙ্গে তছনছ করে জিনিসপত্র। এরপরে একের পর কারো বাড়ির দরজা, কারো বাড়ির জানালা আবার  কারো বাড়ির প্রাচীর ভেঙ্গে ক্ষতি করে ওই হাতিটি। স্থানীয় একটি স্কুলের প্রাচীল ভেঙ্গে তান্ডব চালায় হাতিটি। একের পর এক বাড়ি, দোকানঘর রাতভোর তান্ডব চালিয়ে মঙ্গলবার ভোরে হাতিটি গা ঢাকা দেয় জঙ্গলে। দোকানঘর মিলিয়ে মোট ৯ বাড়ি ক্ষতি করেছে ওই হাতিটি। এলাকার মানুষের কাছে খবর পেয়ে হাতিগুলির দিকে কড়া নজরদারি শুরু করে বনদফতর। চারটি হাতি কয়েকটি ভাগে ভাগ হয়ে যাওয়ার কারনে আরও বেশী করে চিন্তা বেড়েছে বনদফতরের। বেলিয়াতোড় এলাকার জঙ্গল থেকে হাতি যাতে গ্রামে ঢুকে ক্ষতি করতে না পারে মঙ্গলবার সন্ধ্যে থেকেই ময়দানে নামেছে বনদফতর ও হুলাপার্টির সদস্যরা।  যদিও মঙ্গলবার রাতে গ্রাম ঢুকে হামলা চালাতে পারেনি ওই হাতিগুলি। বনদফতর সুত্রে জানা গেছে ওই চার হাতির দুটি হাতি এই মুহুর্তে বড়জোড়া রেঞ্জের ডাকাইসিনি এলাকায়, আর দুটি হাতি রয়েছে বিহারজুড়িয়া এলাকায়। এদিকে ওলতোড়া গ্রামে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান খতিয়ে দেখছে বনদফতর। এলাকার মানুষের দাবি, জঙ্গলে খাবারের অভাব, মাঠেও খাবার নেই তাই হাতি গ্রামের দিকে ঢুকে তান্ডব চালাচ্ছে। বনদফতরের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ তুলেছেন গ্রামের মানুষ। হাতিগুলির দিকে বনদফতরের বিশেষ নজর দেওয়া প্রয়োজন বলে দাবি করেছে এলাকার মানুষ।  ভালো মানের ক্ষতি হয়েছে এই কথা শিকার করেছে বনদফতর। খতিয়ে দেখে ক্ষতিপূরন দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে বলেও জানিয়েছে বনদফতর। হাতিগুলি যাতে গ্রামে ঢুকে ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য ক্লোজ মনিটর করা হচ্ছে বনদফতরের তরফে।

LEAVE A REPLY