দুর্গাপুর পুরসভায় ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার আর্থিক তছরুপের ঘটনায় চাঞ্চল্য

0
162

বিশেষ প্রতিনিধি,দুর্গাপুরঃ দুর্গাপুর পুরসভার জল দপ্তরে আর্থিক তছরুপের অভিযোগে  এক মহিলা কর্মীকে বরখাস্ত করার পাশাপাশি আরএক কর্মীকে সাসপেন্ড করা হল। অভিযোগ এই দুই কর্মী মিলে ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। কিন্তু কী ভাবে এত টাকা আত্মসাৎ করল দুই কর্মী তা কেউ পরিস্কার করে বলতে চাইছেন না। একজনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত ও আর একজনকে সাসপেন্ড করা হলেও তাদের বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয় নি। এতেই পুরসভার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নানা মহলে৷ তাহলে কী কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরিয়ে আসার আশঙ্কায় পুলিশে অভিযোগ করতে নারাজ পুরসভা কর্তৃপক্ষ? মেয়র অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায় এই প্রসঙ্গে কোন মন্তব্য করতে চান নি। ডেপুটি মেয়র অমিতাভ বন্দ্যোপাধ্যায়  দায় সারা ভাবে তদন্ত করা হবে বলেছেন। জল দপ্তরের মেয়র পারিষদ দীপঙ্কর লাহাকে বুধবার পুরসভায় তাঁর দপ্তরে পাওয়া যায় নি। অন্যদিকে যাদের বিরুদ্ধে বিশাল পরিমান অর্থ তছরূপের অভিযোগ উঠেছে সেই কালো রুইদাস ও মৌ কোড়া সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। কালো রুইদাস জল দপ্তরের ক্যাশ কাউন্টারে বসতেন। তিনি বলেন, ” কী ভাবে আমার নাম জড়াল বুঝতে পারছি না।” মৌ কোড়া কাজ করতেন  জল দপ্তরের বিল সেকশনে। তিনি বলেন, ‘আমি মাত্র তিন বছর আগে কাজে যোগ দিয়েছি। অভিযোগটা তারও আগের। তাহলে আমার নাম কী ভাবে জড়াল জানি না।’ সব মিলিয়ে পুরসভার এই বিপুল পরিমান আর্থিক কেলেঙ্কারী ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহরে। সামনেই পুরসভা নির্বাচন। তার আগে এই আর্থিক কেলেঙ্কারীর ঘটনা বিরোধীদের কাছে এক গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হয়ে উঠতে চলেছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY