পিক আপ ভ্যানে অভিনব কৌশলে বিপুল পরিমান গাঁজা পাচার করতে গিয়ে এসটিএফের হাতে গ্রেপ্তার তিন

0
67

সংবাদদাতা,অন্ডালঃ এসটিএফ – এর তৎপরতায় অন্ডালে উদ্ধার হল বিপুল পরিমাণ গাঁজা। পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিন জনকে। শুক্রবার বেলা বারোটা নাগাদ জাতীয় সড়কের অন্ডাল মোড় সংলগ্ন ভাদুর গ্রামের কাছে একটি পিক আপ ভ্যান থেকে উদ্ধার হয় ৪৪৫ কেজি গাঁজা। জানা গেছে, জাতীয় সড়কে পিক আপ ভ্যানে করে গাঁজা পাচার হবে আগাম এই খবর পেয়ে এসটিএফের বিশেষ দল গাড়িটি ধরতে অন্ডাল মোড় সংলগ্ন ভাদুর গ্রামের কাছে ফাঁদ পাতে। সন্দেহজনক গাড়িটি আসতেই সেটিকে আটকায় তারা। প্রাথমিক তল্লাশিতে গাড়িতে গাঁজার সন্ধান পাওয়া যায়নি। গাড়ির মধ্যে ছিল বেশ কিছু গাছের চারা। তবে গাড়ির ডালা দেখে সন্দেহ হয় এসটিএফ দলের আধিকারিকদের।  পুরনো গাড়িটিতে দু’দিকের ডালাগুলিতে ছিল নতুন রঙের প্রলেপ। যা দেখে সন্দেহ হয় তদন্তকারীদের। এছাড়াও একদিকের ডালাটি ছিল অপেক্ষাকৃত মোটা আকৃতির। সেখানে তৈরি করা হয়েছিল বিশেষ বাক্স বা চেম্বার। ডালা খুলতেই সেই চেম্বার নজরে আসে। চেম্বারের ভিতর থরে থরে সাজানো ছিল গাঁজার প্যাকেট। এসটিএফ সূত্রে জানা গেছে, উদ্ধার হওয়া গাঁজার পরিমাণ চার কুইন্টাল ৪৫ কেজি। গাড়িটি আটক করা ছাড়াও পাচার চক্রে জড়িত থাকার অভিযোগে গাড়ির ড্রাইভার সহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের নাম ধানবাদের বাসিন্দা সুধীর পান্ডে, পশ্চিম মেদিনীপুরের বাসিন্দা সান্টু ভূঁইয়া ও সনত ভূঁইয়া। ঝাড়খণ্ডের নাম্বার প্লেট লাগানো গাড়িটি পাচারের উদ্দেশ্যে গাঁজা নিয়ে রওনা দিয়েছিল উড়িষ্যার বিশাখাপত্তন থেকে। উদ্ধার হওয়া গাঁজা, আটকগাড়ি ও গ্রেপ্তার তিনজনকে শুক্রবার রাতে অন্ডাল থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয় এসটিএফ। শনিবার অভিযুক্তদের আসানসোল আদালতে পেশ করা হলে তাদের জামিন হয়নি। ধৃতদের জেরা করে এই চক্রের সন্ধান করছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY