প্রধান উপপ্রধানের বিরুদ্ধে অর্থ তছরূপের অভিযোগ তুলে অফিস ভাঙচুর করলো পঞ্চায়েতের সদস্যরাই

0
123

নিজস্ব প্রতিনিধি,বর্ধমানঃ পঞ্চায়েত অফিস ভাঙচুর করলো খোদ পঞ্চায়েত সদস্যারাই। পূর্ব বর্ধমানের রায়না থানার পলাশন পঞ্চায়েতের ঘটনা। পঞ্চায়েতের সদস্যদের অভিযোগ, প্রধান ও উপপ্রধান সহ পাঁচজন মিলে পঞ্চায়েতের টাকা তছরূপ করেছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন উপপ্রধান। সদস্যদের দাবি না মানলে পঞ্চায়েতের তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন উত্তেজিত পঞ্চায়েত সদস্যরা। রায়নার পলাশন পঞ্চায়েতের সদস্য সংখ্যা ১৫ জন। এই ১৫ জনের মধ্যে উপপ্রধান ও প্রধানকে সঙ্গে নিয়ে আরও তিনজন সদস্য পঞ্চায়েতের সমস্ত কার্যকলাপ দেখেন। বাকি ১০ জন সদস্যের অভিযোগ, দীর্ঘ আট মাস কোন উন্নয়ন হয়নি এলাকায়। এই আট মাসে ৪০(চল্লিশ) লক্ষ টাকার কাজ হয়েছে সেই কাজের কোন হিসাব নাই। পঞ্চায়েতের কোন অনুষ্ঠান হলে বাকি ১০ জন সদস্যকে বলা হয় না। তাদের দাবি,  এই দশজনকে  অন্ধকারে রেখে টাকা পয়সা লুটেপুটে খাচ্ছে পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান। অবিলম্বে এই টাকার হিসেব দিতে হবে। পাশাপাশি গত আট মাস ধরে সেই কাজের খতিয়ান দিতে হবে।যদি না দেওয়া হয় তাহলে পঞ্চায়েতে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন পঞ্চায়েতের সদস্যরা। শুক্রবার  দুয়ারে সরকার প্রকল্প হয়, সেই কারণে পঞ্চায়েতে একজন মাত্র স্টাফ থাকায় পঞ্চায়েতে ঢুকে দশ সদস্য এবং দুই পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য মিলে ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ উপ প্রধানের। উপপ্রধানের আরো অভিযোগ এর আগেও আর,টি,আই করে জানতে চেয়েছিল তারা। তাদেরকে জানানো হয়েছে। তিনি জানান, যেকোন অনুষ্ঠানে জানানো হয় চিঠি মারফৎ, সে প্রমাণও আছে। তা সত্ত্বেও আজকে তারা সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলো। এবিষয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হবেন পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান।

LEAVE A REPLY