স্ত্রী ও তার প্রেমিকের কাছে মার খেয়ে হাসপাতালে ইস্পাতকর্মী,নালিশ রাজ্য মেনস ফোরামে

0
256

বিশেষ প্রতিনিধি,দুর্গাপুরঃ  ইস্পাতনগরী দুর্গাপুরের এ জোনের হর্ষবর্ধন রোডের বাসিন্দা ডিএসপি কর্মী প্রশান্ত কির্তনীয় দিন কয়েক আগে রাতে বাড়ি ফিরে স্ত্রী দেবশ্রীকে এক যুবকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখে ফেলেন। প্রতিবাদ করলে স্ত্রী দেবশ্রী ও তাঁর প্রেমিক সৌরভ রায় দু’জনে মিলে প্রশান্তকে প্রচন্ড মারধর করে ও গলায় ফাঁস লাগিয়ে খুনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। পুলিশ এসে প্রশান্তকে উদ্ধার করে। বর্তমানে আহত অবস্থায় ডিএসপি মেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন প্রশান্ত। তিনি বলেন, ‘আমাদের ১৪ বছরের একটি মেয়ে আছে। তারপরেও আমার স্ত্রী দেবশ্রী সৌরভ রায় নামে এক যুবকের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়েছে। একবছর আগে সৌরভের সঙ্গে ঘর ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিল। সাতদিন পরে ফিরে আসে। নিজের ভুল স্বীকার করে আমার সঙ্গে সংসার করতে চায় বলে। সৌরভের সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে না বলেছিল। তখন মেনে নিয়েছিলাম। কিন্তু সম্পর্ক বজায় রেখেছিল। ১৫ তারিখ রাতে বাড়ি ফিরে এসে দেখি ঘরের মধ্যে দেবশ্রী ও সৌরভ অন্তরঙ্গ অবস্থায় আছে।’ আহত প্রশান্তের পরিবারের তরফে দুর্গাপুর থানা ও রাজ্য মেনস ফোরামে অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন মেনস ফোরামের সভাপতি নন্দিনি ভট্টাচার্য। যদিও খুনের চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন প্রশান্তর স্ত্রী দেবশ্রী। তিনি বলেন,   ‘একসময় সৌরভের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল। কিন্তু এখন সম্পর্ক নেই। তা সত্তেও আমাকে সন্দেহ করেন স্বামী। এমনকি সৌরভের গতিবিধি অনুসরণ করে। ক্ষুব্ধ হয়ে সৌরভ ১৫ তারিখ রাতে আমাদের বাড়িতে এসেছিল একটা হেস্তনেস্ত করার জন্য। সেই সময় আমার স্বামী বাড়িতে ঢুকে বাঁশ দিয়ে আমাকে মারধর করে। প্রতিরোধ করে সৌরভ। খুনের চেষ্টা করা হয় নি।’

LEAVE A REPLY