ঝালদা পৌরসভায় শাসক বিরোধী দুই পক্ষই ডাকল তলবি সভা

0
27

সাথী প্রামানিক,পুরুলিয়া,৪ নভেম্বরঃ ঝালদা পৌরসভার ১২ আসন বিশিষ্ট পৌরসভার শাসকদলের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের পাঁচ ও নির্দলের এক কাউন্সিলার মিলে অনাস্থার ডাক দেন। এবিষয়ে কংগ্রেসের বিরোধী দল নেতা তথা ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলার বিপ্লব কয়াল বলেন, আমি জানিনা যে ঝালদা পৌরসভায় অফিসের টাইম টেবিল সমন্ধে কি ধারণা রয়েছে। কারণ আমি রাত ১১টা ৩২ মিনিটে প্রায় মধ্যরাতে মেল মারফত ঝালদা পৌর সভার উপ পৌর প্রধানের তলবি সভার নোটিশ পাই। সেটাও তার যে তলবি সভা ডাকার কথা ছিল তার পরে পেয়েছি। এটা সম্পূর্ণ অবৈধ ও আইনি জটিলতা পাকানোর একটা চক্রান্ত অনাস্থাকারীদের উপর। তাই আমরাও তিনজন কাউন্সিলার ৭  নভেম্বর তলবি সভার ডাক দিয়েছি। যদিও ঝালদা পৌর সভার উপ পৌর প্রধান সুদীপ কর্মকার বলেন,  “আমি ঠিক সময় মতো ও নিয়ম মেনে  পৌর সভার ১২  কাউন্সিলারকে তলবি সভার চিঠি করেছি। তলবি সভা হবে ২১ নভেম্বর। যেখানে  বিরোধীদের কাজ বিরোধীতা করা সেটাই তারা করছেন। ঝালদা পুরসভায় উন্নয়ন হোঁচট খায় কাউন্সিলরদের রেষারেষি আর ক্ষমতা দখলের স্পৃহার কারণে।  ১৩৪ বছরের প্রাচীন এই পুরসভা আজও ছোট্ট জনপদ। সার্বিক উন্নয়ন যতটা হওয়া উচিত ছিল তার ছিঁটেফোঁটা নেই। হবে কী করে? শেষ বারো বছরের পিছনে তাকালেই বোঝা যাবে এর কারণ। ২০১০ সাল থেকে ঝালদা পুরসভায় ১০ বারেরও বেশি পুরপ্রধান বদল হয়েছে। রাজনীতির গেঁরোয় অনাস্থা অস্ত্রে পরাজিত হয়েই ওই পুর প্রধানরা ক্ষমতা হারিয়েছেন। প্রতিবারে নির্দল প্রার্থীরা নির্ণায়ক হন, না হয় দল বদল করে চেয়ারম্যান বদলানোর খেলায় মেতে উঠেন।  এবারেও সেই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

*২০১০ সালে ঝালদার পুরো বোর্ডে পুর প্রধান বদলেছে চারবার।

*২০১৫ সালের বোর্ডে পুর প্রধান বদলেছে তিনবার।

*২০১৫ সালের বোর্ডে একটি আসন না পেয়েও যোগদানের মাধ্যমে অনাস্থা এনে পুরসভার ক্ষমতা দখল করেছিল তৃণমূল।

*২০১৫ সালের পুরবোর্ডে অনাস্থার পরেও ক্ষমতা ধরে রাখতে তৃণমূলের পুর প্রধান সুরেশ আগারওয়াল আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।১২ ওয়ার্ড বিশিষ্ট ঝালদা পৌর সভায় কংগ্রেসের পাঁচ ও একজন নির্দল প্রার্থীর সমর্থনে অনাস্থার ডাক দেওয়া হয়েছে। ঠিক এরই মধ্যে একজন কাউন্সিলার তৃণমূলের পদ ও দল ত্যাগে শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। পরিসংখ্যান অনুযায়ী তৃণমূলের মোট কাউন্সিলার ৫ জন। অনাস্থার ডাক দিয়েছেন এক নির্দল  সহ ৬ জন কংগ্রেস কাউন্সিলার। নির্দল শীলা চ্যাটার্জি তৃণমূল দল ও পদত্যাগ করাতে তৃণমূল বোর্ড দূর্বল শুধু নয় সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারায়।

LEAVE A REPLY