খুনের অস্ত্র ছিল দরজার খিল,ধৃত জাহিরের থেকে নগদ ৯৪ হাজার টাকা উদ্ধার

0
49

বিশেষ প্রতিনিধি,দুর্গাপুর: কাবুলিওয়ালা আজম খান হত্যার ঘটনায় ধৃত জাহির শেখ প্রথমে পুলিশে বিভ্রান্ত করেছিল। পরে জেরার মুখে খুনের কথা স্বীকার করেন জাহির। দরজার খিল দিয়ে মাথায় আঘাত করে আজমকে হত্যা করার কথা কবুল করে জাহির। তাঁকে জেরা করে খিল সহ নগদ ৯৪ হাজার ২০০ টাকা, একটি সোনার বালা, একটি চাবি সহ অনান্য সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে এ-জোন ফাঁড়িতে একটি সাংবাদিক বৈঠকে এই সব সামগ্রী প্রকাশ্যে নিয়ে আসা হয়। ২ তারিখ সকালে আজমকে খুন করে ঘরে তালা বন্ধ করে বড়জোড়ায় নিজের বাড়িতে চলে যায় জাহির। ওই দিন রাতে কাইজার গলিতে যে বাড়িতে ভাড়া থাকতেন আজম সেই বাড়ির একটি ঘরের দরজার তালা ভেঙে আজমের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। খুনের ঘটনায় সন্দেহের তালিকায় সবার ওপরে আজমের রাঁধুনি জাহির শেখের নাম ছিল। আসপাশের লোকেদের সঙ্গে কথা বলে ও ঘটনাস্থল থেকে কিছু তথ্য পেয়ে পুলিশ নিশ্চিত হয় আজমকে জাহির হত্যা করেছে। ওইদিন রাতেই জাহিরকে গ্রেপ্তার করার জন্য বড়জোড়ায় তাঁর বাড়িতে যায় পুলিশ। গ্রেপ্তার করে দুর্গাপুরে নিয়ে আসা হয় তাঁকে। এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে এসিপি তথাগত পান্ডে বলেন ‘প্রথমে পুলিশকে বিভ্রান্ত করলেও পরে খুনের কথা স্বীকার করেছে জাহির। তাঁকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর খুনের ঘটনায় ব্যবহৃত দরজার খিল উদ্ধার করা হয়। টাকা পয়সা লেনদেন সংক্রান্ত গন্ডগোলের জেরে খুন করা হয়েছে আজম খানকে।’

LEAVE A REPLY