“গ্রাম জাগাও-বাংলা বাঁচাও” কর্মসূচিতে লাউদোহায় সিপিএমনেত্রী মীনাক্ষী

0
65

সংবাদদাতা, লাউদোহাঃ কেন্দ্র, রাজ্যে লুটের সরকার চলছে। তাদের নীতিহীনতায় বাড়ছে বেকারত্ব। বুধবার লাউদোহাতে এক জনসভায় এভাবেই মুখর হলেন সিপিআইএম নেত্রী মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়। “গ্রাম জাগাও-বাংলা বাঁচাও” কর্মসূচিতে বুধবার বেলা দশটা নাগাদ লাউদোহা স্কুল মাঠে জনসভার আ.োজন করেছিল সিপিআইএম। সভাতে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলের রাজ্য কমিটির সম্পাদিকা মিনাক্ষী মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও ছিলেন দামোদর অজয় এরিয়া কমিটির সম্পাদক তুফান মন্ডল, জেলা কমিটির সদস্য সুভাষ বাউরী, শ্রমিক নেতা রঞ্জিত মুখোপাধ্যায় সহ অন্যরা।‌ তৃণমূল ও পুলিশ এদিনের সভা আটকানোর চেষ্টা করেছিল বলে অভিযোগ করেন রঞ্জিতবাবু। শেষ মুহূর্তে তাদের সভা করার অনুমতি দেওয়া হয়। বামেদের এভাবে আটকানো যাবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন রঞ্জিতবাবু। শেষে বক্তৃতা দিতে ওঠেন মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়।‌ কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের নীতির বিরুদ্ধে সরব হন তিনি। বলেন, রাজ্যে ও কেন্দ্রে লুটের সরকার চলছে। জনগণের অর্থ আত্মসাৎ করছে শাসক দলের নেতারা। দুর্নীতির জন্য পুলিশ, সরকারি আধিকারিক, সরকারি কর্মীরাও দায়ী বলে অভিযোগ করেন মীনাক্ষী দেবী। তিনি বলেন, জনগণের টাকায় এদের বেতন হয়। দুর্নীতি আটকানো এদের দায়িত্ব। কিন্তু এরাই আজ দলদাসে পরিণত হয়ে গেছে। সেই সুযোগে লুটপাট চালাচ্ছে শাসক দলের নেতারা। জনগণ সব দেখছে। জনগণই এদের গদি থেকে টেনে হিচড়ে নামিয়ে দেবে। শুধু সময়ের অপেক্ষা। সভা শেষে সাংবাদিকদের একাংশ মীনাক্ষী দেবীকে মেদিনীপুরের বিভিন্ন সমবায় ভোটে বাম ও রামেদের জোট প্রসঙ্গে প্রশ্ন করলে তিনি “শুভেন্দু অধিকারী একসময় তৃণমূল করতেন, এখন বিজেপি করছেন তার দল বদল নিয়ে প্রশ্ন উঠে না কেন” এই বলে প্রসঙ্গটি এড়িয়ে যান তিনি। পঞ্চায়েত ভোটে জোট প্রসঙ্গ সম্পর্কে মীনাক্ষী দেবী বলেন,এ ব্যাপারে দল যথাসময়ে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেবে।    

LEAVE A REPLY