ফ্যাশন প্রতিযোগিতায় “মিসেস ইন্ডিয়া আইকন” খেতাব জিতলেন অন্ডালের গৃহবধূ

0
95

সংবাদদাতা, অন্ডাল : চলতি বছর সর্বভারতীয় ফ্যাশন প্রতিযোগিতায় মিসেস ইন্ডিয়া আইকন খেতাব জিতলেন অন্ডালের গৃহবধূ সুস্মিতা সুনা দাস । তার এই সাফল্যে এখন খুশির হাওয়া শ্বশুরবাড়িতে ।
এক সুস্মিতা সেন বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতা জিতে উজ্জ্বল করেছিল ভারতের মুখ । আরেক সুস্মিতা সুনা দাস মিসেস ইন্ডিয়া আইকন খেতাব জিতে গর্বিত করল অন্ডালবাসীকে । বছর ৩২ এর সুস্মিতা সুনা দাস আদতে উড়িষ্যার মেয়ে । এমবিএ পাস করা সুস্মিতা বর্তমানে ব্যাঙ্গালোরে একটি বেসরকারি সংস্থায় হিউম্যান রিসার্চ নিয়ে কাজ করেন । ২০২০ সালে তার বিয়ে হয় অন্ডালের উখড়া গ্রামের দাসপাড়ার বাসিন্দা, দিব্যেন্দু দাসের সাথে । কর্মসূত্রে দুজনেই থাকেন ব্যাঙ্গালোরে । কাজের পাশাপাশি ফ্যাশন ও গ্ল্যামার জগতে সুস্মিতার আগ্রহ বহুদিনের । প্রথম র্্যাম্পে হাঁটেন কর্পোরেট সংস্থা আয়োজিত একটি ফ্যাশন শোয়ে । সেই প্রতিযোগিতায় সুস্মিতা প্রথম হয় । তবে এখানে থেমে থাকা নয় আরো বড় প্রতিযোগিতা জন্য নিজেকে তৈরি করেন তিলে তিলে । অংশ নেন মিসেস বেঙ্গালুরু ফ্যাশন প্রতিযোগিতায় । দেশের বিভিন্ন শহরের পাঁচ হাজার প্রতিযোগি নিয়ে ব্যাঙ্গালোরে এই প্রতিযোগিতাটি আয়োজিত হয় ১৮-ই আগস্ট । সকল প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে মিসেস বেঙ্গালুরু খেতাব জিতে নেই সুস্মিতা । এরপর রাজ্য স্তরের প্রতিযোগিতা মিসেস কর্নাটকা খেতাব জেতেন সুস্মিতা । ১৭ ই সেপ্টেম্বর ৩০০ জন প্রতিযোগীকে নিয়ে এই প্রতিযোগিতাটি হয় রাজস্থানের জয়পুরে । এরপর হয় চূড়ান্ত পর্যায়ের মিসেস ইন্ডিয়া আইকন প্রতিযোগিতা । ওয়াই এস ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাশন উইক সংস্থা আয়োজিত এই প্রতিযোগিতাটি হয় বেঙ্গালুরু সিটিতে চলতি মাসের ২ তারিখ । ওয়াইল্ড কার্ড এন্ট্রি নিয়ে এই প্রতিযোগিতাই অংশ নেয় সুস্মিতা । প্রতিযোগিতায় ছিল দেশের ৮০ জন প্রতিযোগী । সবাইকে পেছনে ফেলে মিসেস ইন্ডিয়া আইকন মুকুট জিতে নেয় সুস্মিতা । সুস্মিতার এই সাফল্যে এখন খুশির হওয়া অন্ডালের উখরার দাসপাড়ায় তার শ্বশুরবাড়িতে । শশুর প্রাক্তন খনি কর্মী মুরলিধর দাস জানান বৌমা গুণবতী জানতাম । কিন্তু ফ্যাশনে তার এই প্রতিভার কথা জানা ছিল না । তার সাফল্যে আমরা খুশি, বৌমার সব ইচ্ছা পূরণ হোক এটাই চাই । আমরা সবাই বৌমার বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় রয়েছি বলে জানান মুরলীধর বাবু । সুস্মিতা সুনা দাস জানান তিনি সুস্মিতা সেনের ভক্ত । তাকে দেখেই ফ্যাশন ও গ্ল্যামার জগত সম্পর্কে আগ্রহ তৈরি হয় । তাকে অনুসরণ করেই এই সাফল্য এসেছে বলে সুস্মিতা জানান । সুস্মিতা সেনের পদ অনুসরণ করে আগামী দিনে ফ্যাশন ও গ্ল্যামার জগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই বলে জানান সুস্মিতা ।

LEAVE A REPLY