পুরুলিয়ার তুলিনে বিয়ে বাড়িতে ডিজে বন্ধ করতে শূন্যে গুলি পুলিশের, লাঠি চার্জ

0
220

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ৫ মে: বিয়ে বাড়িতে ডিজে বন্ধ করতে গিয়ে বাধার সম্মুখীন হল ঝালদা থানার অন্তর্গত তুলিন ফাঁড়ির পুলিশ। দুই পক্ষের মধ্যে বচসা হয়। চরমে উঠে হাতাহাতিতে চলে যায়। পুলিশের বিরুদ্ধে গুলি চালানো ও লাঠি চার্জ করার অভিযোগ উঠল। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে আজ সকাল থেকে রাঁচি রোড অবরোধ করেন স্থানীয়রা। ঘটনাস্থলে পৌঁছান পুলিশের পদস্থ আধিকারিকরা।
পরিবারের পক্ষ থেকে গৌরা মাহাতো ও চম্পা মাহাতো জানান, কাল আমার মেয়ের বিয়ে ছিল। হঠাৎ রাত সাড়ে দশ টা নাগাদ তুলিন ফাঁড়ির তিনজন পুলিশ মদ্যপ অবস্থায় এসে সাউন্ড বক্সের তার ছিঁড়ে গালিগালাজ ও লাঠিচার্জ করে। কোনও মহিলা পুলিশ ছাড়াই মহিলাদেরও মারামারি করেন। তাদের মধ্যে একজন প্রদীপ বাবু এক রাউন্ড গুলি চালান। ভয়ে খাবার ছেড়ে অনেকে পালিয়ে যান। অনেক খাবার নষ্ট হয়ে যায়। ওই অবস্থায় কোনোরকমে বিয়েটা সম্পন্ন হয়।” তারই প্রতিবাদে রাঁচি পুরুলিয়া সড়ক পথ অবরোধ করা হয় বলে জানান তাঁরা। অবরোধকারীদের দাবি অভিযুক্ত তিনজন পুলিশের সাসপেন্ড ও ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ওই পরিবারের পাশে দাঁড়ান প্রতিবেশী ছাড়াও গ্রামের অধিকাংশই। পরিস্থিতি বুঝে ঘটনা স্থলে পৌঁছান ঝালদা মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সুব্রত দেব। তিনি অবশ্য ঘটনাটি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন। বিষয়টি নিয়ে তাঁকে লিখিত অভিযোগ করেন গ্রামবাসীরা। তাদের দাবি ওই অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারের শাস্তি ও পরিবারের ক্ষতিপূরণ। অবশেষে অভিযোগ জমা নেওয়ার পর পথ অবরোধ উঠে যায়। সকাল ৬ টা থেকে সাড়ে দশটা পর্যন্ত অবরোধ চলে। যার জেরে অনেক পণ্যবাহী গাড়ি ও যাত্রীবাহী যান আটকে পড়ে। রাত্রের ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন জেলা পরিষদ সদস্য রাজীব সাও, জেলা যুব কংগ্রেস সম্পাদক চন্দন মাহাতো ও আজসু পার্টির ঝালদা ১ নং ব্লক সভাপতি রাজেশ মাহাতো। পুলিশের গুলি চালানোর মতো পরিস্থিতি ছিল না বলে মনে করেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY