এসএফআই রুকেগা নেহি, বাধা দিলে পুলিশের ব্যারিকেড রাস্তায় থাকবে না – হুঁশিয়ারি নেতৃত্বের

0
38

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ “পুষ্পার অনুকরণে এসএফআই আগে বলত এসএফআই ঝুকেগা নেহি। এখন এস এফ আই এর নতুন শ্লোগান এসএফ আই রুকেগা নেহি। এস এফ আই এর যারা শহীদ হয়েছেন তাঁদের কারো পিঠে গুলি লাগেনি। গুলি লেগেছে হয় মাথায় নাহয় বুকে। কলকাতার কলেজ স্ট্রীটে সমাবেশ হবেই। পুলিশ বাধা দিতে এলে ব্যারিকেড রাস্তায় থাকবে না”। সংগঠনের জাঠা মিছিল নিয়ে আজ বাঁকুড়ায় পৌঁছে এই ভাষাতেই হুঁশিয়ারি দিলেন এস এফ আই এর রাজ্য সভাপতি প্রতিক উর রহমান। এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে প্রতিক উরের অভিযোগ , “শিক্ষা না বাঁচলে সংবিধান বাঁচবে না। সংবিধান না বাঁচলে দেশ বাঁচবে না। দেশ ও রাজ্যের সরকার শিক্ষাকে বিক্রি করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। এতে গরীব ছেলেমেয়রা শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে। তাই শিক্ষাকে বাঁচাতে এস এফ আই আন্দোলনে নেমেছে। কেন্দ্রের শিক্ষা নীতির বিরোধীতায় রাস্তায় নামলেও বিজেপির মেধাবী ছাত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর দল বিরোধীতা করছে”। কেন্দ্র ও রাজ্যের বর্তমান দুই শাসক দলকে এদিন একই সাথে বিঁধেছেন প্রতিক উর রহমান। তাঁর দাবী, ” কেন্দ্র জল জমি জঙ্গল বিক্রি করছে এদিকে রাজ্য বালি থেকে টালি বিক্রি করছে। এই দুই বিরুদ্ধেই আমাদের লড়াই। চুরি করে, ভোট লুঠ করে জিতলেও মনের দিক থেকে মানুষ তৃনমূলের সাথে নেই। তাই সময় যত যাচ্ছে আমাদের মিছিল ততই বড় হচ্ছে। আগামী ২ সেপ্টেম্বর এই মিছিল কলকাতার বুকে জনসমুদ্র রূপে আছড়ে পড়বে”।কলেজ স্ট্রীটে ২ রা সেপ্টেম্বর বাম ছাত্র সমাবেশ। এই সমাবেশের উদ্দেশ্যে বাঁকুড়ায় পৌঁছল এস এফ আই এর বর্নাঢ্য জাঠা মিছিল। এস এফ আই রাজ্য সভপতির নেতৃত্বে বাঁকুড়া শহর ঘুরল ওই জাঠা মিছিল। এদিন এই মিছিল থেকে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ও রাজ্যের তৃণমূল সরকার কে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সরব হলেন রাজ্যের বাম ছাত্র নেতা প্রতীক উর রহমান। এদিন অনুব্রত ইস্যু নিয়ে ছাত্র নেতার হুঁশিয়ারি, এই মাটিতে আর অনুব্রত কে খুঁযে পাওয়া যাবে না। কত অনু হনু আমরা দেখে নেবো। মোদি ও দিদির যোগসাজসে সমস্ত কালোবাজারি হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন ছাত্র নেতা।

LEAVE A REPLY