কেন্দ্রীয় শাসক দলের প্রতিনিধিদের ‘ফেকু লোক’ বলে কটাক্ষ শত্রুঘ্ন সিনহার  

0
25

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ পঞ্চায়েত ভোট যতই আসন্ন ডান,বাম,রাম সব শিবির লড়াইয়ের ময়দানে মাঠে নেমে পড়েছে। সব রাজনৈতিক শিবির তাদের হেবি ওয়েটদের দিয়ে গ্রাম বাংলার প্রতিটি কোনায় গিয়ে প্রচার চালাতে মরিয়া,কেউ যেন কাউকে এক চুল জায়গা ছাড়তে নারাজ।পঞ্চায়েত ভোটের পূর্বে বিজেপির বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক  জেলার বাঁকুড়ার বড়জোড়া হাইস্কুল ময়দানে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সভার পর দিন  বিষ্ণুপুর তৃণমূল সাংগঠনিক জেলার তরফ থেকে একটি পালটা সভার আয়োজন করা হয়। এই সভায় উপস্থিত ছিলেন আসানসোলের সাংসদ শক্রুঘ্ন সিনহা, সায়ন্তিকা বন্দোপাধ্যায়,রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক,জেলার বিভিন্ন বিধায়ক  সহ জেলার অন্যান্য নেতৃত্ব। সেখানে প্রথমে খোলা মঞ্চে মানুষের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দিয়ে কেন্দ্রের শাসক দলের প্রতিনিধিদের ফেকুলোক বলে কটাক্ষ করেন শত্রুঘ্ন সিনহা। তিনি বলেন,কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ধনশক্তি,পেশীশক্তির ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে কেন্দ্রে ক্ষমতায় এসেছে। কিন্তু মমতা ব্যানার্জী জনশক্তি নিয়ে ক্ষমতায় এসেছে। এদিন বড়জোড়া ফুটবল ময়দানে বলিউডের এই তারকাকে দেখতে উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেল। পঞ্চায়েত ভোটের পূর্বে শাষক-বিরোধি হেভি ওয়েট প্রচার এবং রাজনৈতিক বাকযুদ্ধ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ন বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। অন্যদিকে, ‘শত্রুঘ্ন সিনহার কোনো বদনাম নেই। তাই তাঁকে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে তৃণমূল’। দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, “আমি আগে বিজেপিতে ছিলাম। দিলীপ ঘোষকে ভালোবাসি। আমি কারো বিরুদ্ধে কিছু বলিনা, এটা আমার অভ্যাস। আমি ইস্যু ভিত্তিক বক্তব্য রাখি” ।

LEAVE A REPLY