পানাগড়ে স্কুল চলাকালীন অসুস্থ ৪০ জন পড়ুয়া,বসল মেডিক্যাল ক্যাম্প

0
97

জয় লাহা, দুর্গাপুর, ৩০ জুলাইঃ  ভ্যাপসা গরম। স্কুল চলাকালীন আচমকা অসুস্থ হতে শুরু করে পড়ুয়ারা। মাথা ব্যাথার সঙ্গে বমি ভাব। স্কুলের প্রার্থনা লাইনে অসুস্থ হয়ে পড়ে যায় দুজন পড়ুয়া। তারপর থেকে একের পর এক অসুস্থ হতে শুরু করে। বেগতিক বুঝে অসুস্থদের ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। শনিবার দুপুরে ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল কাঁকসার পানাগড় দার্জিলিং মোড়ে একটি বেসরকারী স্কুলে। খবর পেয়ে স্কুলে পৌঁছায় পুলিশ ও মেডিক্যাল টিম। ঘটনায় জানা গেছে, পানাগড় দার্জিলিং মোড়ে রয়েছে একটি বেসরকারী স্কুল। এদিন বেলা দশ’টা নাগাদ প্রার্থনার লাইনে দুই পড়ুয়া মাথা ঘুরিয়ে পড়ে যায়। মাথা ব্যাথার সঙ্গে বমি ভাব উপসর্গ শুরু হয়। স্কুলের মধ্যে তাদের মাথায় জল দিয়ে শ্রুশ্রুষার কাজ শুরু হয়। তার পর ক্লাস শুরু হতেই আবারও একের পর এক পড়ুয়া একই উপসর্গে অসুস্থতাবোধ করে। বেগতিক বুঝে অসুস্থদের প্রথমে স্থানীয় পানাগড় ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। খবর চাউর হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে অবিভাবকদের মধ্যে। খবর পেয়ে স্কুলে পৌঁছায় কাঁকসা থানার পুলিশ। খবর পৌঁছায় জেলা শাসকের কাছে। জেলা শাসক ও জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের তৎপরতায় স্কুলে বসানো হয় মেডিক্যাল ক্যাম্প। সেখানে চিকিৎসা শুরু হয়। যার মধ্যে একজন পড়ুয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুর্গাপুরে এক বেসরকারী হাসপাতালে পাঠানো হয়। জানা গেছে, ৪০ জন পড়ুয়া এদিন অসুস্থ হয়ে পড়ে। যদিও পড়ুয়াদের অসুস্থতা দেখে তাড়াতাড়ি স্কুল ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়। এদিন বিকাল পর্যন্ত ৪-৫ জন পড়ুয়াকে হাসপাতালে চিকিৎসায় পর্যবেক্ষনে রাখা হয়। বাকিদের ঘন্টাখানেক চিকিৎসায় পর্যবেক্ষনে রাখার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। আচমকা কি কারনে পড়ুয়ারা অসুস্থ হয়ে পড়ল, সেবিষয়ে আতঙ্কিত অবিভাবকরা। যদিও কাঁকসা ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক বিপ্লব মন্ডল জানান,” দুজন পড়ুয়ার সর্দি কাশি ছিল। একজনের সুগার ছিল। বেশীরভাগ অসুস্থদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক অনুমান গরম জনিত কারনে অসুস্থ। তবুও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”   

LEAVE A REPLY