পশ্চিম বাংলায় ২৬ নয়,২৪ লোকসভা ও বিধানসভার নির্বাচন একসঙ্গে হবে,হুঁশিয়ারী শুভেন্দু অধিকারীর

0
131

নিজস্ব প্রতিনিধি,বর্ধমানঃ সোমবার পূর্ব বর্ধমানের সাতগেছিয়ার মাঠে দলীয় সভায় উপস্থিত ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী।তিনি বলেন হায়দ্রবাদে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উল্লেখ করেছেন,পশ্চিমবঙ্গ ভয় ও আতঙ্কের জায়গা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৫৬ ভোটে হেরেছেন আমার কাছে। তাই তিনি সব সময়ে ১৯ র ভয় দেখছেন।বাংলা আবাস যোজনা, সড়ক যোজনা,শৌচাগার সব জায়গাতেই বাংলা লেখা হয়েছিল। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভয় পেয়ে সব মুছে দিচ্ছেন। মুছে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী লেখা হচ্ছে। বাংলায় ৭০ লক্ষ শৌচাগার দিয়েছে মোদি সরকার। সিবিআই নিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন খোকন দাস, কেতুগ্রামের বিধায়ক দুর্গাপুর ঘুরে এসেছেন। ভোট পরবর্তী হিংসায় আমাদের কর্মী সমর্থকদের অত্যাচার করা হয়েছে। প্রাইমারি, এসএসসি, দমকল বাহিনীতে নিয়োগ নিয়ে দুর্গন্ধ উঠে গেছে। টাকা নিয়ে চাকরী দিয়েছে তৃণমূল নেতারা। কোন নিয়ম কানুন মানা হয় নি।সাদা খাতা জমা দিয়ে চাকরী পেয়েছে।অন্যদিকে তিনি বলেন,রাজ্যে এই মুহূর্তে  ৫ লক্ষ ৬২ হাজার কোটি টাকা ঋণের বোঝা। ১১ সালের পর ৫ লক্ষ পরিচায়ী শ্রমিক এখন মমতার যাদুতে ৪৫ লক্ষ বেড়ে হয়েছে।রাজ্যে চাকরী নেই। ভিন রাজ্যে বাংলার মানুষ চলে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। রাষ্টপ্রতি ভোট নিয়ে এখন ডিগবাজি খাচ্ছেন মমতা।ইস্কনের রথ টানতে গিয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেছেন আগে জানলে ভেবে দেখতেন।আসলে মোদীজীর ছক্কায় কুপোকাত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সামনের ২১ তারিখে দ্রোপদী মুর্মু জিতবেন।তিনি দেশের রাষ্ট্রপতি হবেন বলে মন্তব্য করেন শুভেন্দু। পঞ্চায়েত নির্বাচনে মানুষ ভোট দেবেন।মিঠুন চক্রবর্তী নিয়ে তিনি বলেন,মিঠুন বিজেপির জাতীয় কর্ম সমিতির সদস্য।বিজেপি কোন ব্যক্তি নির্ভর নয়।পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভোট লুঠ হলে ভোট বাস্ক জলে ফেলা হবে।

LEAVE A REPLY