কৌশিকী অমাবস্যায় তারাপীঠে পুণ্যার্থীর ঢল, সারারাত খোলা মন্দিরের গেট

0
41

পারমিতা মণ্ডল, রামপুরহাট, ২৬ আগস্টঃ শুক্রবার ছিল কৌশিকী অমাবস্যা। দু-বছর পর কৌশিকী অমাবস্যায় তারাপীঠ মন্দিরের দ্বার পুণ্যার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। সেজন্য কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষ্যে তারাপীঠ মন্দিরে পুণ্যার্থীদের ঢল নেমেছে। বহু দূর-দূরান্ত থেকে মনস্কামনা পুণ্যের লক্ষ্যে তারাপীঠ মন্দিরে এসেছেন ভক্তেরা। একেবারে দ্বারকা নদীতে স্নান সেরে মা তারার পুজো দিচ্ছেন পুণ্যার্থীদের অনেকেই। হুড়োহুড়ি এড়াতে মন্দিরে পুজো দেওয়ার জন্য দু-তিনটি পৃথক লাইনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া ভক্তদের জন্য এবারে সারারাত মন্দিরের গেট খোলা থাকবে। রাতভোর মা তারার বিশেষ পুজোয় অংশগ্রহণ করতে পারবেন ভক্তেরা। বিশেষত, যাঁরা অমাবস্যায় উপবাস করে থাকবেন, তাঁরা মা তারার নিশি সামিল হতে পারবেন বলে জানালেন তারাপীঠ মন্দিরের পুরোহিত গোলক মহারাজ। এছাড়া তারা মায়ের যেমন বিশেষ ভোগের ব্যবস্থা করা হয়েছে, তেমনই ভক্তদের জন্যও মন্দির চত্বরে ভোগ-ভাণ্ডারার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়া মন্দির চত্বরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে। মন্দির সূত্রে খবর, এদিন দুপুর ১২ টা ০২ মিনিটে কৌশিকী অমাবস্যার তিথি শুরু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১ টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত অমাবস্যা তিথি চলবে। এদিন ভোর থেকেই পুজো শুরু হয়ে গিয়েছে। দিনভোর পুজো চলবে। মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানান, এদিন বেলা ১১ টার সময় মন্দির বন্ধ রেখে মায়ের মধ্যাহ্ন ভোগ দেওয়া হয়। তারপর ফের দুপুর ১২ টা নাগাদ গর্ভগৃহের গেট খুলে দেওয়া হয় পুণ্যার্থীদের জন্য। সন্ধ্যা ৬ টা সন্ধ্যারতি করা হয়। তারপর রাত্রি ১১ টায় শুরু হয় নিশিপুজো। সেই আরতি ভক্তরা অংশগ্রহণ করেন। তারাপীঠ মহাশ্মশানে রাতভোর যাগ-যজ্ঞ চলে। কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষ্যে এদিন তারা মায়ের বিশেষ পুজো যেমন হচ্ছে, তেমনই বিশেষ ভোগের আয়োজন করা হচ্ছে। মন্দির কমিটির সম্পাদক ধ্রুব চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এদিন দুপুর ১১ টায় তারা মাকে বিশেষ অন্ন ভোগ দেওয়া হয়। তার মধ্যে অন্ন ছাড়াও পোলাও, খিচুড়ি, পায়েস, সবজি, ১৬-১৭ রকম ভাজা ছিল। এছাড়া তারা মায়ের বিশেষ পুজোর অন্যতম শোল মাছ পোড়াও দেওয়া হয় ভোগে। তিনি বলেন, “কথিত আছে এই কৌশিকী অমাবস্যাতেই সিদ্ধিলাভ করেছেন বামদেব। তাই আমরা মন্দির কমিটির পক্ষে থেকে ভাবনা-চিন্তা করে এবছর থেকে ভৈরব বামদেবের পুজো শুরু করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৬ টায় তারা মায়ের আরতি করা হয়”। প্রশাসনের দাবি, এদিন লক্ষাধিক ভক্তের সমাগম হয়েছে তারপীঠ মন্দিরে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে মন্দির চত্বরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে। পুরো মন্দির চত্বর সিসিটিভিতে মুড়ে ফেলা হয়েছে। মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY