দুর্গাপুরে পণের বলি এক নববধূ

0
138

বিশেষ প্রতিনিধি,দুর্গাপুরঃ পণের বলি এক বধূ।  বিয়ের মাত্র দেড় মাসের মধ্যে সিম্পি কুমারি (১৮) নামে এক বধূকে মারধর করার পর শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগে উঠল শ্বশুর বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি স্টিল টাউনশিপের এডিশন রোডের। সিম্পির বাপের বাড়ির লোকেদের অভিযোগের ভিত্তিতে দুর্গাপুর থানার পুলিশ সিম্পির স্বামী সত্যজিৎ প্রসাদ ও তাঁর বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে বিহারের জাহানাবাদের বাসিন্দা সিম্পি কুমারির সাথে দুর্গাপুরের বি-জোন অঞ্চলের এডিশন রোডের বাসিন্দা সত্যজিৎ প্রসাদের বিয়ে হয়েছিল দেড় মাস আগে। বিয়ের সময় জামাইকে নগদ ৬ লাখ টাকা সহ সোনার গয়না ও আসবাবপত্র দিয়েছিলেন সিম্পির বাবা। জামাই সত্যজিৎ প্রসাদ একটি চারচাকা গাড়ি দাবি করেছিলেন। গাড়ি দিতে পারেন নি সিম্পির বাবা। এই নিয়ে বিয়ের পর থেকে সিম্পির ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করত সত্যজিৎ। সিম্পির বাবা কৃষ্ণনন্দন প্রসাদ বলেন “রবিবার দুপুরে সিম্পির শ্বশুর আমাকে ফোন করে। বলে সিম্পি গলায় দড়ির ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সোমবার দুর্গাপুরে এসে দেখি মেয়ের সিম্পির শরীরে একাধিক জায়গায় বেল্ট দিয়ে মারার আঘাত আছে৷ মারধর করার পর শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে আমার মেয়েকে। বিয়েতে গাড়ি দিতে পারি নি বলে মেয়েকে খুন করল শ্বশুর বাড়ির লোকেরা।”

LEAVE A REPLY