গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু,খুনের অভিযোগ মেয়ের পরিবারের

0
256

নিজস্ব সংবাদদাতা,পাণ্ডবেশ্বর: এক গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে ছড়ালো চাঞ্চল্য। গলায় ফাঁস দিয়ে খুন করা হয়েছে মেয়েকে বলে অভিযোগ বাপের বাড়ির লোকেদের। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। রবিবার পাণ্ডবেশ্বরের ডিভিসি পাড়ায় গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় উদ্ধার হয় এক গৃহবধূর মৃতদেহ। মৃতের নাম আরজু পারভীন (১৮)। গত ২১ মার্চ রানীগঞ্জের রোনাই এর বাসিন্দা আরজুর বিয়ে হয় পাণ্ডবেশ্বরের ডিভিসি পাড়ার বাসিন্দা শেখ হামিদ এর সাথে। মেয়ের বাবা জাহিদ হোসেন জানান, গত পরশুদিন ফোনে মেয়ের সাথে শেষবার কথা হয়। কথা বলে সবকিছু স্বাভাবিক মনে হয়েছিল। গতকাল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা ফোন করে জানায় আরজু আত্মহত্যা করেছে। তিনি বলেন, আমরা এসে যে অবস্থায় মেয়ের দেহ দেখেছি তাতে মনে হয়েছে আত্মহত্যা নয়,হত্যা করেই তাকে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। স্বামী সহ,শ্বশুরবাড়ির লোকেরা মেয়েকে খুন করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। সোমবার সকালে দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে পাণ্ডবেশ্বর থানার সামনে ভিড় জমান মেয়ের বাপের বাড়ির লোকজনেরা। তাদের সাথে ছিলেন আসানসোল পৌরসভার ৩৫ নম্বর (রানীগঞ্জ) ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলার আখতারী খাতুন। তিনি বলেন, শশুরবাড়ির কোন অভিযোগ বা চাহিদা থাকলে বাপের বাড়ির লোকজনেদের সেটা জানানো উচিত ছিল। তা না করে যেভাবে মেয়েটিকে খুন করা হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানায় পাণ্ডবেশ্বর থানার এক আধিকারিক।

LEAVE A REPLY