বমি,বুকে-পেটে ব্যাথার রোগীকে সাপে কাটার ওষুধ দেওয়ায় মৃত্যু,ধুন্দুমার বাঁকুড়ায়

0
61

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ পুজোর রেশ কাটতে না কাটতেই ভুল চিকিৎসা অভিযোগে উত্তপ্ত বাঁকুড়া। বমি,বুকে ও পেটে ব্যথা নিয়ে ভর্তি হওয়া রোগীকে দেওয়া হয় সাপে কাটার ওষুধ, এমনটাই অভিযোগ মৃত রোগীর পরিবার পরিজনের।বাঁকুড়ার কোতুলপুরের গোগড়া গ্রামীন হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ধুন্দুমার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় হাসপাতাল চত্বরে। রোগির পরিবার সূত্রে খবর, আজ  সকালে কোপা গ্রামের বাসিন্দা বছর ৪৫ এই মন্টু পরি নামে এক ব্যাক্তি বমি, পেটে ও বুকে যন্ত্রনা নিয়ে গোগড়া হাসপাতালে ভর্তি হয়। রোগীর পরিবার ও গ্রামবাসীদের অভিযোগ, বমি বুকে পেটে ব্যথা চিকিৎসা করতে বলা হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোন বিষয়ে কর্ণপাত করেনি। সাপে কাটার চিকিৎসা করা হয়, দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি ইনজেকশন এমনটাই অভিযোগ মৃতের আত্মীয়দের। পরবর্তীতে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে রোগীকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করে দেওয়া হয়। কিন্ত সেখানে যাওয়ার মাঝপথেই মৃত্যু ঘটে রোগীর। রোগীর পরিবার পরিজনদের অভিযোগ ভুল চিকিৎসারর কারনেই মৃত্যু হয়েছে বছর মন্টুর। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় হাসপাতাল চত্বর।রোগির আত্মীয় পরিজনরা দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখাতে থাকে হাসপাতালে চত্বরে। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কোতুলপুর থানার বিশাল পুলিশবাহিনী।পুলিশ এসে পরিস্থিতিকে সামাল দেয়। রোগীর পরিবার পরিজন ও গ্রামবাসীরা গুরুতর অভিযোগ করেছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিষয়ে। তবে এ বিষয়ে মুখ খুলতে চায়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

LEAVE A REPLY